Print
প্রচ্ছদ » খেলাধুলা

ঢাকা, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮:

ক্রিকেট মানে ব্যাট-বলের লড়াই। ব্যাটে বল লাগার সাথে সাথে ফিল্ডারদের ছোটাছুটি। দিনশেষে এক দলের আনন্দ, আর আরেক দলের বিষাদ। সমর্থকদের উল্লাস কিংবা মুদ্রার অপর পিঠে থাকা বেদনার গল্প। না, ক্রিকেটে বেদনার গল্পের শেষ এখানেই নয়। ক্রিকেটারদের বেদনার গল্প কয়জন জানে? কেউ কি জানে, একটি ইনজুরি একজন ক্রিকেটারের জন্য কী পরিমাণ বেদনার কারণ হতে পারে?

এটা সবাই জানে যে, ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে আঙুলে চোট পেয়েছিলেন বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তার সেই জাদুকরী বাঁ-হাতের কনে আঙুল। অধিকাংশ মানুষই হয়ত অনুমানও করতে পারেনি, কী ভয়ংকর যন্ত্রণা সহ্য করতে হচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেটর 'পোস্টার বয়'কে।

সম্প্রতি সোশ্যাল সাইটে কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়ে গেছে। হাসপাতালে ডা: অজিত আগরওয়ালের রুমে সাকিবের আঙুলে দেওয়া সেলাই কাটার ছবি। যাতে সেলাই কাটার সময় যন্ত্রণায় কুঁকড়ে যেতে দেখা গেছে সাকিবকে। গত ১০ ফেব্রুয়ারি মরিয়া হয়েই সাকিব ছুটে গিয়েছিলেন ডাক্তারের কাছে। তিনি টি-টোয়েন্টি সিরিজটা মিস করতে চান না। কিন্তু ডাক্তার তাকে যে তথ্য দিলেন, তা মন খারাপ করার মতই। টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও খেলতে পারবেন না তিনি!

আঙুলের ব্যথার চেয়ে মাঠে না নামতে পারার ব্যথাটা সাকিবের সবচেয়ে বেশি। আর সোশ্যাল সাইটে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলো দেখে ক্রিকেটপ্রেমীরা শিউরে উঠছেন। একজন ক্রিকেটারের কী ভয়াবহ কষ্টের মধ্য দিয়ে যেতে হয়, পারফর্ম করে জাতীয় দলে জায়গা ধরে রাখতে হয়, তা অনুভব করছেন সবাই। ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটে বিশ্বের সেরা অল-রাউন্ডার যে অন্য সবার মতই রক্তমাংসের মানুষ, তা খুব ভালোভাবেই বুঝতে পারছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। আর সাকিবের জন্য উজার করে দিচ্ছেন ভালোবাসা।সূত্র-কালের কন্ঠ