Print
প্রচ্ছদ » বিশেষ সংবাদ

১৬১ কোম্পানিতে প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে

ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭:

লেনদেনের উত্থানের সাথে সূচকে নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে পুঁজিবাজার। বিনিয়োগকারীদের সক্রিয়তায় লেনদেন ও সূচকের এমন রেকর্ড। গত আগস্ট মাসে পুঁজিবাজারের তালিকাভু্ক্ত ১৬১টি প্রতিষ্ঠানের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে। আর কমেছে ১০২টিতে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে পাওয়া তথ্য পর্যালোচনায় এমন তথ্য মিলেছে।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, তালিকাভুক্ত ২৯৮ কোম্পানির মধ্যে ২৯০টিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ রয়েছে। অবশ্য তালিকাভুক্ত ২৯৮ কোম্পানির মধ্যে পাঁচটির ক্ষেত্রে ক্যাটাগরি অনুযায়ী শেয়ার ধারণের তথ্য পাওয়া যায়নি। এগুলো হলো- প্রকৌশল খাতের ন্যাশনাল টিউবস, বস্ত্র খাতের এনভয়, ফ্যামিলিটেক্স ও সিএনএ টেক্সটাইল এবং ওষুধ খাতের সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস। এর মধ্যে ফ্যামিলিটেক্সে গত জুলাই মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল না।

সূত্র জানায়, পরিশোধিত মূলধনের হিসাবে আগস্ট শেষে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা, যা জুলাইয়ের তুলনায় ৩৬ কোটি টাকা বেশি। বর্তমানে তালিকাভুক্ত ২৯৮ কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৫৬ হাজার ৭৫৮ কোটি টাকা। এতে অংশ মোটের ১৮ দশমিক ৫১ শতাংশ।

আর বাজার মূলধনের হিসাবে ২৯০ কোম্পানিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ধারণ করা শেয়ারের বাজারমূল্য ৪৯ হাজার ৯১৬ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে, যা গত জুলাইয়ের তুলনায় ১ হাজার ৬৫৪ কোটি টাকা বেশি। আগস্ট শেষে ২৯৮ কোম্পানির বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪১ হাজার ২২৫ কোটি টাকা। এতে প্রাতিষ্ঠানিক অংশ ছিল মোটের ১৪ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনায় আরও দেখা গেছে, গত মাসে কোনো কোম্পানির মোট শেয়ারে ২ থেকে সাড়ে ২৩ শতাংশ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার ধারণের পরিমাণ বেড়েছে এমন কোম্পানি সংখ্যা ছিল ২৭। এর মধ্যে সর্বাধিক সাড়ে ২৩ শতাংশ শেয়ার ধারণ বেড়েছে রহিমা ফুডে। এ নিয়ে কোম্পানিটির মোট শেয়ারের প্রাতিষ্ঠানিক অংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে মোটের ২৮ দশমিক ৫৫ শতাংশে। সিটি গ্রুপের মালিকপক্ষ কোম্পানিটির উদ্যোক্তা গ্রুপের কাছ থেকে শেয়ার নেওয়ায় এ পরিবর্তন এসেছে বলে জানিয়েছে কোম্পানি সূত্র।

এ ছাড়া প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলে পৌনে ১১ শতাংশ বেড়ে ১০ দশমিক ৮০ শতাংশে উম্নীত হয়েছে। অর্থাৎ গত মাসেই বড় অঙ্কের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ এসেছে কোম্পানিটিতে। বিদ্যুৎ কোম্পানির লাইসেন্স পাওয়ার খবরে কোম্পানিটির শেয়ারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা আকৃষ্ট হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে। এর পরের অবস্থানে থাকা ইনটেক অনলাইনের মোট শেয়ারে প্রাতিষ্ঠানিক অংশ ৯ দশমিক ৩৯ শতাংশ বেড়ে ১৬ দশমিক ৬৭ শতাংশে, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকে ৯ দশমিক ১৩ শতাংশ বেড়ে ১৩ দশমিক ২২ শতাংশে উম্নীত হয়েছে। ৫ থেকে পৌনে ৬ শতাংশ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার ধারণ বেড়েছে প্রিমিয়ার লিজিং, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, আল-হাজ্ব টেক্সটাইল, আর্গন ডেনিম ও প্রাইম ইন্স্যুরেন্সে।

সাড়ে ৪ থেকে প্রায় ৫ শতাংশ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার ধারণ বেড়েছে সিএমসি কামাল টেক্সটাইল, নূরানী ডাইং ও পিপলস লিজিংয়ে। ৩ থেকে প্রায় ৪ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, ফু-ওয়াং সিরামিক, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, অঘ্নি সিস্টেমস ও ইসলামিক ফাইন্যান্সে।

২ শতাংশের ওপর বেড়েছে সমতা লেদার, বিডি ফাইন্যান্স, আরামিট সিমেন্ট, রংপুর ডেইরি অ্যান্ড ফুড, বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মো প্লাস্টিক, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, আনলিমা ইয়ার্ন, সালভো কেমিক্যাল ও বারাকা পাওয়ারে।

বিপরীতে সর্বাধিক সাড়ে ১৮ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার কমেছে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক থেকে। মূলত ইউনাইটেড গ্রুপ ও নেপচুন প্রপার্টিজ এবং এর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের শেয়ার কেনাবেচার কারণে এ পরিবর্তন এসেছে। তারপরও গত আগস্ট মাস শেষে ব্যাংকটিতে প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার ছিল মোটের ১১ দশমিক ৫৯ শতাংশ। ডেফোডিল কম্পিউটার্স থেকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা তাদের বড় বিনিয়োগ তুলে নিয়েছেন। কোম্পানিটিতে শেয়ার ধারণ ১০ দশমিক ৮৩ শতাংশ কমে ৯ দশমিক ০৩ শতাংশে নেমেছে। ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ থেকেও বড় অঙ্কের প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ হ্রাস পেয়েছে। প্রায় পৌনে ৮ শতাংশ কমে নেমেছে সোয়া ১৫ শতাংশে। খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং থেকে প্রাতিষ্ঠানিক শেয়ার ৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ কমে ১০ দশমিক ৩৯ শতাংশে নেমেছে।

এ ছাড়া শমরিতা হাসপাতাল, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, ইনফরমেশন সার্ভিসেস ও বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেমস থেকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে ৫ শতাংশ হারে। তিন থেকে প্রায় চার শতাংশ পর্যন্ত কমেছে ঢাকা ডাইং, এএফসি এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ, আরএসআরএম স্টিল, ড্রাগন স্পিনিং অ্যান্ড সোয়েটার ও জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস কোম্পানিতে। কোম্পানির মোট শেয়ার থেকে ২ থেকে প্রায় ৩ শতাংশ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে অ্যাকটিভ ফাইন, বিবিএস কেবলস, জিএসপি ফাইন্যান্স, বিডি থাই অ্যালুমিনিয়াম, ওয়ান ব্যাংক, বিডি ল্যাম্পস, আইএফআইসি ব্যাংক, আমরা টেকনোলজিস, ফরচুন সুজ ও আইডিএলসি ফাইন্যান্স থেকে।

শেয়ারনিউজ/