Print
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক

ঢাকা, ১০ জানুয়ারি ২০১৮:

'দিল্লি কা লাড্ডু' কেউ না খেয়ে পস্তান, কেউ খেয়ে পস্তান। কিন্তু সূর্যকান্ত কদম নামের মুম্বাই পুলিশের এক কনস্টেবল এই 'লাড্ডু'তে এতো মজা পেয়েছেন যে ২৪ বছরে সাতটি বিয়ে করেছেন। নিজেকে ওই কনস্টেবলের স্ত্রী দাবি করে তার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন প্রচিতা নামে এক নারী।

মুম্বাইয়ের কল্যাণ এলাকায় মানপাড়া থানায় দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করেন সূর্যকান্ত। তার এমন কীর্তি এতোদিন ঘুণাক্ষরেও টের পাননি সহকর্মীরা। কিছুদিন আগে প্রচিতা থানায় এসে নিজেকে কদমের স্ত্রী বলে দাবি করেন। এ সময় তিনি 'স্বামী'র বিরুদ্ধে বহুবিবাহের অভিযোগ আনেন।

প্রচিতার দাবি, ১৯৮৬ সালে প্রথম বিয়ে হয় কদমের। এরপর ১৯৯১ সালে তার সঙ্গে আলাপ হয় পেশায় নার্স প্রচিতার। ওই সময় ওই পুলিশ কনস্টেবল নিজেকে ডিভোর্সি হিসেবে পরিচয় দেন। প্রচিতাও ডিভোর্সি ছিলেন। এরপর দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে ও ১৯৯২ সালে বিয়ে হয়। দুই সন্তানও রয়েছে তাদের।

এক পর্যায়ে প্রচিতা জানতে পারেন এভাবে অন্তত সাতটি বিয়ে করেছেন কদম। প্রত্যেকেই ওই থানা এলাকার বাসিন্দা। সাত স্ত্রীর মধ্যে দুই জনের মৃত্যুও হয়েছে। প্রচিতা এতদিন চুপ ছিলেন কেন- এমন প্রশ্নের উত্তরের জবাবে মুম্বাই পুলিশ সূত্র জানায়, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আপাতত সাসপেন্ড করা হয়েছে সূর্যকান্তকে। সূত্র: এনডিটিভি।