Print
প্রচ্ছদ » জাতীয়




ঢাকা, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭:

রাজধানীর বিভিন্ন থানায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের করা তিন মামলায় আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম, গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী এ আদেশ দেন। আগামী ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত থাকবে বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহের হোসেন সাজু।

গত ১৪ ডিসেম্বর রাজধানীর গুলশান, ধানমন্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় শুল্ক গোয়েন্দার করা পাঁচ মামলার মধ্যে তিন মামলায় দিলদার আহমেদসহ আপন জুয়েলার্সের মালিকদের জামিন দেন হাইকোর্ট। তবে বাকি ‍দুই মামলা স্ট্যান্ডওভার রাখা হয়েছে। এ দুই মামলায় আাগমী ২৬ জানুয়ারি আদেশের জন্য দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। দুই মামলায় জামিন না হওয়ায় তারা বর্তমানে কারাগারেই রয়েছেন।

বনানীর একটি হোটেলে জন্মদিনের দাওয়াতের নামে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই তরুণীকে নিয়ে ধর্ষণ করে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদারের ছেলে সাফাত আহমেদ। পরে ওই দুই তরুণী সাফাতসহ তার সঙ্গীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ধর্ষণের এ মামলা নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এরপরই আপন জুয়েলার্সের অবৈধ লেনদেনের খোঁজে তদন্তে নামে শুল্ক গোয়েন্দা। আপন জুয়েলার্সের বিভিন্ন শোরুম থেকে ১৫ দশমিক ৩ মণ সোনা এবং ৭ হাজার ৩৬৯টি হীরার অলঙ্কার জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা।

এ বিষয়ে অনুসন্ধান শেষে গত ১২ আগস্ট আপন জুয়েলার্সের মালিক তিন ভাই দিলদার আহমেদ, গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদের বিরুদ্ধে মুদ্রা পাচারসহ বিভিন্ন অভিযোগে গুলশান, ধানমন্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় পাঁচটি মামলা করা হয়।




শেয়ারনিউজ/