Print
প্রচ্ছদ » জাতীয়

জাতির পিতা একাধিক নয়; প্রধান বিচারপতিকে হানিফ



ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০১৭:

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া রায়ে ‘ফাদারস অব দ্য নেশন’ বলতে প্রধান বিচারপতি কী বুঝিয়েছেন তা তার কাছে জানতে চেয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবউল আলম হানিফ। তিনি বলেন, ‘আমাদের জাতির পিতা একাধিক নয়, আমাদের জাতির পিতা একজন।’শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর আলোচনা হানিফ এ কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগ এই আলোচনার আয়োজন করে।


হানিফ বলেন, ‘মাননীয় বিচারপতি কোন গোষ্ঠীর সাথে হাত মিলিয়ে আপনি এই ষড়যন্ত্র লিপ্ত হয়েছেন তা আমরা জানতে চাই, আপনার এই পর্যবেক্ষণ বাঙালি জাতি কোনদিন মেনে নেবে না। এই পর্যবেক্ষণ আপনাকে বাদ দিতে হবে’।


বিচারপতিকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘মীমাংসিত বিষয় নিয়ে বির্তক সৃষ্টি করার কোন অধিকার আপনার নেই। আমাদের মুক্তিযুদ্ধ,আমাদের স্বাধীনতা এই সব মীমাংসিত বিষয় এইগুলো নিয়ে বিতর্ক র্সষ্টি করবেন না।’


আওয়ামী লীগ আইনের শাসনে বিশ্বাসী ও শ্রদ্ধাশীল এবং বিচারকার্যে কোনো প্রভাব বিস্তার করতে চায় না মন্তব্য করে হানিফ বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের মাধ্যমে সংসদের হাত থেকে ক্ষমতা কেড়ে নিয়েছেন তাতে আমরা কিছু বলিনি, কিন্তু পর্যবেক্ষণের নামে আপনি যা করেছেন সেক্ষেত্রে আমাদের আপত্তি আছে।’


ষোড়শ সংশোধনী মামলার রায়ের পক্ষে অবস্থান নিয়ে বিএনপি জিয়াউর রহমানকে অবৈধ শাসক হিসেবে স্বীকার করে নিয়েছে বলেও মনে করেন হানিফ। এ জন্য বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে ধন্যবাদ জানিয়ে হানিফ বলেন, ‘অবশেষে আপনারা শিকার করলেন যে মেজর জিয়া অবৈধ শাসক ছিলেন। কারণ আপনি ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে সংসদের হাত থেকে ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ার রায়কে ঐতিহাসিক হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন। সে রায়ে আরও বলা হয়েছে মেজর জিয়া অবৈধ শাসক ছিলেন। যদি আপনাদের দলনেতা অবৈধ হয় তাহলে তার হাতে গড়া দলটিও অবৈধ হবে।’


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ মফিজুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারন সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান ও সাধারন সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স প্রমুখ এ সময় বক্তব্য রাখেন।




শেয়ারনিউজ/এমআর