Print
প্রচ্ছদ » জাতীয়

জবি ছাত্রলীগের সম্মেলনে আলোচনার শীর্ষে যারা



ঢাকা, ২৯ মার্চ ২০১৭:
নানা আমেজের মধ্য দিয়ে আজ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অন্যত্যম জেলা ইউনিট “জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগ” এর সম্মেলন।কারা অসছেন আগামি দিনের নেতৃত্বে, তা জানতে আগ্রহের কমতি নেই কারো।বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক,সাধারন শিক্ষার্থী,কর্মকর্তা,কর্মচারী সংশ্লিষ্ট সকলের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু সম্মেলন।সম্মেলনের আমেজ শুধু ক্যাম্পাসেই নয় ছাত্রলীগের পার্টি অফিস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যন্টিন, টিএসসি,হাকিম চত্ত্বর সহ বিভিন্ন যায়গায় এর আমেজ চোখে পড়ার মত। সম্মেলন উপলক্ষে পুরো ক্যাম্পাস ব্যনারে ভরে গেছে।


কে হবেন জবি ছাত্রলীগের আগামী দিনের কান্ডারী, তা বলা মুশকিল। তবে দৌড়যাপের কমতি নেই কারো। বিভিন্নজন বিভিন্নভাবে লবিং-তদবিরে ব্যস্ত। এ নিয়ে গুঞ্জন চলছে বিভিন্ন মহলে। নতুন কমিটিতে ভাইটাল পদের (সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক) জন্য বিভিন্নভাবে লভিং-তদবির করে বেড়াচ্ছেন প্রায় ২ ডজন ছাত্রনেতা। ভাইটাল পদ পেতে আগ্রহী ছাত্রনেতারা ছাত্রলীগ,আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাদের মন যোগিয়ে রাখতে বিভিন্নভাবে লবিং করে বেড়াচ্ছেন বলে জানা যায়।


কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ‘লবিং-তদবির করে কোন লাভ হবে না। নতুন নেতৃত্বে আসবে ক্লিন ইমেজের ব্যাক্তি,যারা নিয়মিত ছাত্র, যাদের বয়স ২৯ বছরের কম,যারা অবিবাহিত এবং যাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই তারাই নেতৃত্বে আসবে।’ যাদের ছাত্রত্ব নিয়ে ঝামেলা ,চাঁদাবাজ ,মাদকসেবা সহ পাশ্ববর্তী থানায় মামলা বা সাধারন ডায়েরী রয়েছে তাদেরকে নতুন কমিটিতে স্থান দেয়া হবেনা বলে তিনি জানান।


নতুন কমিটিতে পছন্দের পদ পেতে আগ্রহী ২ ডজন ছাত্রনেতার মধ্যে আলোচনার শীর্ষে যারা: বর্তমান কমিটির যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক: শাখাওয়াত হোসেন প্রিন্স, আশরাফুল ইসলাম টিটন, হারুনুর রশিদ; সাংগঠনিক সম্পাদক:, তানভীর রহমান খান,মো. মাহবুবুল আলম খান রবিন, শামীম রেজা; উপ-কর্মসূচী ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক: মো. ইব্রাহিম ফরাজী; গণযোগাযোগ ও উন্নযন বিষয়ক সম্পাদক আপেল মাহমুদ এবং সহ-সম্পাদক: নুরুল আফসার।





শেয়ারনিউজ/সোহাগ