Print
প্রচ্ছদ » অর্থনীতি

এডিপি বাস্তবায়নে ধীরগতি



ঢাকা, ১১ এপ্রিল ২০১৭:

চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ) বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) বাস্তবায়ন হয়েছে ৪৫ শতাংশ। এডিপি বাস্তবায়নের এ হার ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১ শতাংশীয় পয়েন্ট বেশি। গত অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছিল ৪৪ শতাংশ।


মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠক শেষে এডিপি বাস্তবায়নের সর্বশেষ পরিস্থিতি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরা হয়। পরিকল্পনামন্ত্রীর তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে উন্নয়ন বরাদ্দের ৫৩ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে বরাদ্দের ৪১ হাজার ৯৭৫ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছিল। এ হিসাবে গত অর্থবছরের প্রথম নয় মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের একই সময়ে প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা বেশি ব্যয় হয়েছে।


আগামী তিন মাসে সংশোধিত এডিপির বরাদ্দ ব্যয় করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এডিপির বাস্তবায়ন বাড়াতে এরই মধ্যে অনেক সংস্কার আনা হয়েছে। প্রয়োজনে আরো সংস্কার আনা হবে। অর্থবছরের শেষ তিন মাস সাধারণত কাজের বিল পরিশোধ করা হয়। ফলে এডিপি বাস্তবায়ন বাড়বে।


চলতি অর্থবছরের মূল এডিপির আকার ছিল ১ লাখ ২৩ হাজার ৩৪৬ কোটি টাকা। সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দ ৪ হাজার ৫০ কোটি ৩ লাখ টাকা কমানো হয়েছে। এর ফলে সংশোধিত এডিপির আকার দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১৯ হাজার ২৯৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। সংশোধিত এডিপিতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ রয়েছে পরিবহনে ২৫ হাজার ৩৫৯ কোটি ৬০ লাখ টাকা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ ভৌত-পরিকল্পনা-পানি সরবরাহ ও গৃহায়ণে ১৩ হাজার ৯৭৭ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। তৃতীয় সর্বোচ্চ ১২ হাজার ৭১২ কোটি ৯৭ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে শিক্ষা ও ধর্মে। চতুর্থ সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বিদ্যুতে, ১২ হাজার ৩৪৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা।


সংশোধিত এডিপিতে বাড়ানো হয়েছে প্রকল্পের সংখ্যা। মূল এডিপিতে মোট প্রকল্প ছিল ১ হাজার ২৭৮টি। সেখান থেকে ৩০৩টি বাড়িয়ে সংশোধিত এডিপিতে প্রকল্প দাঁড়াচ্ছে ১ হাজার ৫৮১টি। এর মধ্যে বিনিয়োগ প্রকল্প ১ হাজার ২৫৫টি, কারিগরি সহায়তা প্রকল্প ১৫৪টি, জেডিসিএফ প্রকল্প ছয়টি ও স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়িত প্রকল্প ১৬৬টি। এর মধ্যে নতুন অনুমোদিত প্রকল্প রয়েছে ২৭২টি।