Print
প্রচ্ছদ » অর্থনীতি

সরকারের ব্যাংক ঋণ কমেছে



ঢাকা, ১০ এপ্রিল ২০১৭:

চাহিদার তুলনায় সঞ্চয়পত্র বিক্রি থেকে বেশি ঋণ পাচ্ছে সরকার। এতে ব্যাংক থেকে যে পরিমাণ ঋণ নেওয়া হচ্ছে, পরিশোধ করা হচ্ছে তার চেয়ে বেশি। সব মিলিয়ে গত অর্থবছরের তুলনায় ব্যাংক খাতে সরকারের ঋণ ২৫ হাজার ৫৭৯ কোটি কমে ৮৩ হাজার কোটি টাকায় নেমে এসেছে। যদিও ব্যাংকের সুদের তুলনায় দ্বিগুণ হারে সঞ্চয়পত্র থেকে ঋণ নেওয়ায় সরকারের ব্যয় বাড়ছে ব্যাপক হারে।


অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে সঞ্চয়পত্র বিক্রি থেকে গত ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আট মাসে ৩৩ হাজার ২৮৩ কোটি টাকা পেয়েছে সরকার। অথচ পুরো অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে ১৯ হাজার ৬১০ কোটি টাকা ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল। গত অর্থবছরের মূল বাজেটে ১৫ হাজার কোটি টাকা লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও পরে তা বাড়িয়ে ২৮ হাজার কোটি টাকা করা হয়। অর্থবছর শেষে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৩৩ হাজার ৬৮৯ কোটি টাকা। মূলত সঞ্চয়পত্রের সুদহার দীর্ঘদিন ধরে অপরিবর্তিত থাকলেও ব্যাংকে আমানতের সুদ ধারাবাহিকভাবে কমছে। বর্তমানে ব্যাংকে মেয়াদি আমানত রেখে ৫ থেকে সাড়ে ৬ শতাংশ সুদ পাওয়া যায়। অথচ ২০১৫ সালের মে মাসের পর থেকে সঞ্চয়পত্রে টাকা রেখে পাওয়া যাচ্ছে ১১ শতাংশের বেশি।


চলতি অর্থবছরের বাজেটে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে ৩৮ হাজার ৯৩৮ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়। তবে ঋণ না বেড়ে উল্টো কমার ফলে গত মার্চ শেষে মোট ঋণস্থিতি কমে ৮৩ হাজার ৭০ কোটি টাকায় নেমেছে। গত নয় মাসে বাংলাদেশ ব্যাংকে সরকারের ঋণ ১৭ হাজার ৪৫৮ কোটি টাকা কমে স্থিতি নেমে এসেছে ৪ হাজার ৪১৭ কোটি টাকায়। আর বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো থেকে ৮ হাজার ১২১ কোটি কমে স্থিতি দাঁড়িয়েছে ৭৮ হাজার ৬৫৩ কোটি টাকায়।




শেয়ারনিউজ/এআর