Print
প্রচ্ছদ » শেয়ারবাজার

ঢাকা, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮:

কনসোলিডেটেড কাষ্টমার একাউন্টে ঘাটতি রাখা, ক্যাশ হিসাবে মার্জিন ঋণ সুবিধা প্রদান করা, ব্যালেন্স না থাকার পরেও কর্মচারীদের আত্মীয়দের অর্থ প্রদান করা, জেড ক্যাটাগরির শেয়ারে ঋণ প্রদান, হিসাব খোলার ফরম যথাযথভাবে পূরণ করা ছাড়াই সংরক্ষণ করা ইত্যাদি অনিয়মের কারণে জরিমানার মুখে পড়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ৪৪ নং ট্রেকহোল্ডার এম সিকিউরিটিজ লিমিটেড। সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘনের কারণে আজ অনুষ্ঠিত কমিশনের ৬২৩তম সভায় হাউজটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

হাউজটি যেসব আইন লঙ্ঘন করেছে তা নিম্নে বর্ননা করা হলো:

ক) সমন্বিত গ্রাহক হিসাব এ ঘাটতির মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস,১৯৮৭ এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার, স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা, ২০০০ এর বিধি ১১; দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণ বিধি ১ ও ৬ লঙ্ঘন।

খ) সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক-ডিলার, স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা,২০০০ এর দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণবিধি ১ এর লঙ্ঘন।

গ) ক্যাশ হিসাবে মার্জিন ঋণ সুবিধা প্রদান করার মাধ্যমে মার্জিন রুলস,১৯৯৯ এর লঙ্ঘন।

ঘ) পর্যাপ্ত ব্যালেন্স না থাকা সত্ত্বেও কর্মচারীদের আত্মীয়দের অর্থ প্রদান করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক-ডিলার,স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা ২০০০ এর বিধি ১১ এবং দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণবিধি ১ ভঙ্গ করেছে।

ঙ) জেড ক্যাটাগরির শেয়ারে বিনিয়োগকারীকের ঋণ প্রদানের মাধ্যমে কমিশনের নির্দেশনার লঙ্ঘন।

চ) হিসাব খোলার ফরম যথাযথভাবে পূরণ ছাড়াই সংরক্ষন করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস,১৯৮৭ এবং সিডিবিএল এর আইনের লঙ্ঘন।

উল্লেখিত সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘনের কারণে হাউজটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা।