Print
প্রচ্ছদ » শেয়ারবাজার

মাসিক কিস্তিতে বিনিয়োগ সুবিধা দেবে ‘লংকাবাংলা নিশ্চিন্ত’

ঢাকা, ১৬ মে ২০১৭:

আমার সঞ্চয় হোক নিশ্চিন্ত- এই শ্লোগানকে ধারণ করে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করেছে লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেডের বিশেষ বিনিয়োগ প্রকল্প ‘লংকাবাংলা নিশ্চিন্ত’। পুঁজিবাজারে যাদের বিনিয়োগের আগ্রহ আছে, কিন্তু মূলধন ও পুঁজিবাজার বিষয়ে জ্ঞান কম তাদের জন্য এই প্রোডাক্ট নিয়ে এসেছে লংকাবাংলা। এই প্রোডাক্ট গ্রাহকদের কষ্টের সঞ্চয়কে ভালো বিনিয়োগে পরিণত করবে, তৈরি করবে সর্বোচ্চ মুনাফার (Return) সম্ভাবনা। এই প্রকল্পের আওতায় ছোট ছোট মাসিক কিস্তিতে বিনিয়োগ করা যাবে।

নিশ্চিন্তের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে লংকাবাংলার কর্মকর্তারা এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি রাজধানীর ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী হলে এই পণ্যটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন লংকাবাংলার পুঁজিবাজার কার্যক্রমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন চৌধুরী, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাজা শাহরিয়ার ও লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার কায়েস হাসানসহ প্রতিষ্ঠানটির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মোট দেশজ উৎপাদ বাড়াতে ভূমিকা রাখবে লংকাবাংলার নিশ্চিন্ত পণ্যটি। আমাদের এই পণ্যটি জাতীয় বিদ্যুত গ্রিডের মত কাজ করবে। বিষয়টি হলো মানুষের আয় থেকে ব্যয়, ব্যয়ের পর সঞ্চয়, এই সঞ্চয় যদি সরাসরি বিনিয়োগে যায়, আর সেটি যদি হয় পুঁজিবাজারে তাহলে এটি জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশের সঞ্চয়ের স্কিমগুলো সীমাবদ্ধ। এই বিনিয়োগে কোনো ডাইভারসিফিকেশন নেই। কিন্তু লংকাবাংলা নিশ্চিন্তের মাধ্যমে এই বিনিয়োগ বহুমূখী করণ সম্ভব। পুঁজিবাজারে লংকাবাংলার সেবার মান প্রসারিত করতে আরও একধাপ এগিয়েয়ে নিবে এই পণ্যটি।

এই পণ্যে বিনিয়োগের মাধ্যমে গ্রাহক সর্বোচ্চ মুনাফা পেতে পারেন এমন আশাবাদ জানিয়ে নাসির বলেন, সর্বোচ্চ মুনাফার লক্ষ্য নিয়ে পুনরায় একটি কাঠামোগত পদ্ধতির আওতায় পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা হবে। এই মাসিক বিনিয়োগ প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের ভিত্তিতে নির্ধারিত হারে কর রেয়াতের সুবিধা পাবেন একজন গ্রাহক।

লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেডের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাজা শাহরিয়ার বলেন, এই প্রকল্প ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পুঁজি বাজারে আসতে সহযোগীতা করবে। এই গ্রাহকরাই একদিন হয়ে উঠতে পারেন বাজারের বড় বিনিয়োগকারী।

তিনি বলেন, নিয়মিত সঞ্চয়ের মাধ্যমে এ প্রকল্প দিয়ে পুঁজিবাজার থেকে উচ্চ মুনাফা আদায় করতে পারবেন বিনিয়োগকারীরা। পুঁজিবাজারে বিরাজমান দীর্ঘমেয়াদী অস্থিতিশীলতা সত্ত্বেও অন্য যে কোনো বিনিয়োগের তুলনায় এটি অধিক লাভজনক হবে। কারণ এটি পরিচালনা করার জন্য রয়েছে একটি দক্ষ টিম। ফলে এই পণ্যের মাধ্যমে আপনি পুঁজিবাজারে নিশ্চিন্ত বিনিয়োগ করতে পারেন।

লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার কায়েস হাসান বলেন, পুঁজিবাজার গতিশীল করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে লংকাবাংলা পরিবার। এরই অংশ হিসাবে আমাদের এই পণ্য। এর মাধ্যমে কিছু নতুন বিনিয়োগকারী বাজারে নিয়ে আসতে চাই।

তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগে কিছু ঝুঁকি সব সময়ই থাকে। কিন্তু বিনিয়োগ বিষয়ে জ্ঞান অর্জন এবং যথাযথ গবেষণার মাধ্যমে অর্থের সুরক্ষা নিশ্চিত করা সম্ভব। আর আমাদের কর্মীরা রয়েছেন আপনাদের বিনিয়োগ নিশ্চিত করার জন্য।

ধন্যবাদ বক্তব্যে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা হাসান জাবেদ চৌধুরী বলেন, আমরা পণ্যটি আজকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করতে যাচ্ছি। অনুষ্ঠানিকভাবে পণ্যটি পরিচালনা করার সময় গ্রাহকদের ১৯ শতাংশ মুনাফা দিয়েছি। এই ধারা অব্যহত রাখতে চাই আমরা। এই জন্য সবার সহযোগীতা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, সবার সহযোগিতা পেলে আগামী দিনে আমরা আরও ভালো কাজ করতে পারবে। এই প্রকল্পের অধীনে একটি শরীয়াহ প্রোডাক্ট চালু করার কথাও জানান তিনি।

শেয়ারনিউজ/ডেস্ক/কে.আর